বিদেশ যাওয়ার জন্য মেডিকেল করতে কত টাকা লাগে

বিদেশ যাওয়ার জন্য মেডিকেল করতে কত টাকা লাগে

বিদেশ যাওয়ার জন্য মেডিকেল করতে কত টাকা লাগে

বিদেশ যেতে ইচ্ছুক হলে মেডিকেল পরীক্ষা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। মেডিকেল পরীক্ষার মাধ্যমে যাচাই করা হয় যে কোনো ব্যক্তির শারীরিক এবং মানসিক অবস্থা ঠিক আছে কিনা। মেডিকেল করলে বিদেশে শিক্ষা বা কাজের জন্য সুযোগ পাওয়ার সুবিধা বাড়তে পারে।

মেডিকেল করার আগে কি কি করতে হয়?

  • প্রথমেই আপনাকে একটি সন্ধান করতে হবে যে কোনও সম্ভাব্য দেশে আপনি মেডিকেল পরীক্ষা করতে ইচ্ছুক।
  • আপনার আবেদন করার জন্য বিশেষ সময়সূচীটি বিবেচনা করুন। আপনি যদি যে দেশে মেডিকেল করতে চান, তার জন্য আবেদনের সময়সূচী অনুযায়ী অগ্রসর হোন।
  • প্রয়োজনীয় কাগজপত্র সংগ্রহ করুন, যেমন: জন্ম সনদ, পাসপোর্ট, স্বাস্থ্যপত্র ইত্যাদি।
বিদেশ যাওয়ার জন্য মেডিকেল করতে কত টাকা লাগে

Credit: www.youtube.com

মেডিকেল পরীক্ষার জন্য কত টাকা খরচ হয়?

এইচএসসি ভিত্তিক জাতীয় বা এইসি ভিত্তিক পরীক্ষাগারে মেডিকেল করার উপযুক্তমাত্রা সাধারণত ১০,০০০ টাকা থেকে ৪০,০০০ টাকা পর্যন্ত হতে পারে। কিন্তু প্রতিটি দেশের মেডিকেল ফি ভিন্ন ভিন্ন হতে পারে, আর এটি আপনার যাত্রার সময় ও লক্ষ্য দেখিয়ে হাতের তুলনায় পারিবে।

দেশ মেডিকেল ফি (মাত্রা পূর্ণ)
যুক্তরাষ্ট্র ৬০,০০০ – ১,৫০,০০০ ডলার
কানাডা ১৪,০০০ – ২০,০০০ কানাডিয়ান ডলার
যুক্তরাষ্ট্র কানাডা ছাড়াও অন্যান্য দেশ বিভিন্ন মেডিকেল ফি রয়েছে
বিদেশ যাওয়ার জন্য মেডিকেল করতে কত টাকা লাগে

Credit: www.alowronit.com

মেডিকেল করার প্রক্রিয়া

বিভিন্ন দেশের মেডিকেল পরীক্ষা এনক্রিপ্টেড রেপোর্ট এর সাথে শুধুমাত্র একটি মেডিকেল প্রতিবেদনও দাখিল করবেন। যাত্রাপথে এই প্রতিবেদন এবং সম্পূর্ণ স্বাস্থ্যপত্র নিয়ে যাবেন।

মেডিকেল করার আগে পরিকল্পনা

মেডিকেল করার পূর্বে আপনাকে কিছু পরিকল্পনা করা গেলে ভাল হতে পারে:

  • যাত্রাকারী দেশের সেই জনসংখ্যা যাদেরকে মেডিকেল ট্রেটমেন্ট বা কার্যকলাপের জন্য অনুমোদন দেওয়া হবে না তাদের তালিকা প্রাপ্ত করুন।
  • আপনার সমস্যাগুলি সম্পর্কে আরও বিস্তারিত জানতে অগ্রযাত্রার জন্য আপনার ডাক্তারের সাথে কথা বলুন।
  • মেডিকেল পরীক্ষার জন্য শর্তাদির মেয়াদ পর্যাপ্ত পরিমাণ সময়ের জন্য স্বচ্ছতার নিশ্চয়তা নিয়ে গন্তব্য দিন।

মেডিকেল পরীক্ষার সময়

মেডিকেলে গিয়ে অনেক প্রশ্ন করা হয় যা আপনাকে সুবিধা করবে:

  • আপনি যদি যে কোনও বিষয়ে চিন্তিত থাকেন তবে আপনাকে উচ্চ বিশ্রাম নিতে বলা হতে পারে।
  • প্রয়োজন হলে, আপনার সমস্যায় দক্ষিণ দেশে একটি মনের বিশেষজ্ঞের প্রবেশ দিন।
  • স্বাস্থ্যসেবা প্রদানকারী প্রতিষ্ঠান সমস্ত ছড়ান্তভূক্ত ওষুধ, যেমন টি.টি, এইডজেন, প্যারাসিটামলও নিতে পারে।
  • মানসিক স্বাস্থ্য বা মানসিক ক্ষমতা সম্পর্কে সমস্যা থাকলে, মানসিক স্বাস্থ্য সেবা প্রদানকারী প্রতিষ্ঠান মানসিক মনোযোগ ও বিশ্রাম দেওয়ার জন্য সামগ্রিক চিকিত্সা প্রদান করতে পারে।

অবশেষে, আমাদের মূলনীতি হলো একটি মেডিকেল পরীক্ষার জন্য শুধুমাত্র খরচের নয়, এটি আপনার ভবিষ্যতের কর্মসংস্থান এবং জীবনের প্রতিটি পদক্ষেপের জন্য একটি বড় নির্ণয়। একটি স্বাস্থ্যসেবা সরবরাহকারী প্রতিষ্ঠান বাছাই করার আগে ভালভাবে গবেষণা করুন এবং আপনার মেডিকেল প্রয়োজনগুলির জন্য একটি বাজেট তৈরি করুন।

Comments

No comments yet. Why don’t you start the discussion?

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *