কুরআনের ১১৪ টি অধ্যায় কে কি বলা হয়?

কুরআনের ১১৪ টি অধ্যায় কে কি বলা হয়?

কুরআন হলো মুসলমানদের পবিত্র কিতাব। এটি আল্লাহর দ্বারা প্রতিপাদিত হয়েছে এবং মোহাম্মদ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লামের মাধ্যমে মানবজীবনের জন্য নেতৃত্ব করে। কুরআনে ১১৪ টি অধ্যায় বা সূরা আছে, সেগুলি পৃথিবীতেই উপস্থিত হলেও সকল মুসলমানের হৃদয় মেখেছে।

আল ফাতিহা (সূরা ১)

সূরা আল ফাতিহা বা ‘ওপার্থ দোয়া’ হলো কুরআনের শুরুতের সূরা। এই সূরা মুসলমানের অধ্যয়নের প্রথম অংশ হওয়ার কারণে এটি অন্য নামেও পরিচিত। এই সূরা মোহাম্মদ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লামের মাধ্যমে অবিচলিত শক্তির চিন্তার জ্ঞান এবং ধার্মিক ব্যাপারে নিরাপদ জীবনের জন্য একটি পঠন বিধান প্রদান করে।

কুরআনের ১১৪ টি অধ্যায় কে কি বলা হয়?

Credit: bn.quora.com

আল বাকারা (সূরা ২)

সূরা আল বাকারা হলো কুরআনের দ্বিতীয় সূরা। এই সূরা মুসলমানদের জীবনের প্রাথমিক নিয়ম-কানুন বিধান প্রদান করে। এটি অন্যান্য উমিতে নোট করলে মানুষ উলটা থাকে না। ইসলামী ব্যাক্তিবর্গের জন্য সূরা আল বাকারা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ এবং এটি বিভিন্ন আয়োজনগুলির জন্য আধার হিসেবে ব্যবহার করা হয়।

কুরআনের ১১৪ টি অধ্যায় কে কি বলা হয়?

Credit: m.facebook.com

সূরা আন-নিসা (সূরা ৪)

সূরা আন-নিসা বা ‘নারী’ হলো কুরআনের চতুর্থ সূরা। এই সূরা মানবতার নামী ‘মানবিক কার্যক্রম’ এর প্রধান শ্রেণীতে প্রদান করে। নারীর অধিকার এবং গৌরবময় জীবনের জন্য এই সূরা প্রকাশিত হয়েছে। সূরা আন-নিসায়ে ভূল করা উচিত নারীদের আদর্শ উপস্থাপন করা হয়েছে।

সূরা আল-মায়েদা (সূরা ৫)

সূরা আল-মায়েদা বা ‘খাবার পবিত্র করা’ হলো কুরআনের পঞ্চম সূরা। এই সূরা মানবসমাজে ধর্মগুলির প্রভাব এবং অনন্য ধর্মের পরিপ্রেক্ষিতে ইসলামী যুক্তি ও আদায়ের প্রদান বলে বিখ্যাত। কোরানে এই সূরা দ্বারা বলা হয়েছে যে আমাদের মধ্যে ঘৃণা, হিংসা ও আপত্তির কারণে কোন কারিগর মুসলমান নহের মিছিল থাকবে না।

যারা পাঠ না করে আল-কোরান, তারা অনেক কিছু হারবে। কুরআন ঘরে রাখার জন্য কোন অধিকার ও তাকদির সময় নেই। নিয়মিতভাবে কুরআন পড়া এবং বুঝতে জানা দরকার। কুরআনের পাঠ না করে সমস্যার প্রাধান্য ও সমাধান অজানা থাকবে।

Comments

No comments yet. Why don’t you start the discussion?

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *